রবিবার ১৭ জানুয়ারী ২০২১ || মাঘ ৪ ১৪২৭ || ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

Logo

‘পুলিশে মাদক সেবী বা মাদক গ্রহণকারীদের কোন স্থান নেই’

শামসুজ্জোহা বাবু, রাজশাহী প্রতিনিধি

আপডেট: 8:05 pm | রবিবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২০

৭৬

‘পুলিশে মাদক সেবী বা মাদক গ্রহণকারীদের কোন স্থান নেই’

বাংলাদেশ পুলিশে মাদকসেবী ও মাদক গ্রহণকারীদের কোন স্থান নেই বলে মন্তব্য করেছেন মহাপুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার)। আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের “অপারেশন কন্ট্রোল এ্যান্ড মনিটরিং সেন্টার সহ কিশোর গ্যাং ডিজিটাল ডাটাবেজ ও হ্যালো আরএমপি অ্যাপ” উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যদানকালে এ কথা বলেন তিনি। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, ডোপ টেস্ট শুরু করা হয়েছে। এটা সর্বস্তরের জন্য প্রজোয্য। পুলিশে মাদক সেবী বা মাদক গ্রহণকারীদের কোন স্থান নেই। পুলিশ বাহিনী এ ধরণের লোকের কোন প্রয়োজন নেই। আমরা পুলিশ বাহিনীকে পরিস্কার করতে চাই। এটা ঘর পরিচ্ছন্নকারী অভিযান। যারা মাদক সেবন বা গ্রহণের সাথে জড়িত তাদের বাহিনী থেকে বিদায় করতে চাই। এ ধরণের লোক থেকে বাহিনী মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন এলাকার অপরাধ ও অপরাধীকে চিহ্নিত করণ, অপরাধ দমন, জনসাধারণের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে তৈরি করা হয়েছে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের “অপারেশন কন্ট্রোল এন্ড মনিটরিং সেন্টার”। এই “অপারেশন কন্ট্রোল এ্যান্ড মনিটরিং সেন্টার” এর মাধ্যমে রাজশাহী মেট্রোপলিটন এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও মোড়ে স্থাপনকৃত সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে। এছাড়াও রাজশাহী মেট্রোপলিটন এলাকায় সন্দেহভাজন ও অপরাধীদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ, দ্রæত সময়ের মধ্যে অপরাধীকে সনাক্তকরণসহ রাজশাহী মেট্রোপলিটন এলাকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করবে।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন এলাকার কিশোর অপরাধ দমনে কিশোর গ্যাং এর বিস্তারিত তথ্য সম্বলিত “ডিজিটাল ডাটাবেজ” তৈরি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে কিশোর গ্যাং এর প্রায় ৪০০ কিশোরের বিস্তারিত তথ্য ডিজিটাল ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই ডিজিটাল ডাটাবেজে কিশোর অপরাধের সাথে জড়িত কিশোরদের বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত যেমন তাদের বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা, অভিভাবকের নাম, প্রাতিষ্ঠানিক ঠিকানা, তাদের সম্ভাব্য চলাচলের এলাকা, মোবাইল নম্বর, ছবি সহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য তথ্যাদি স্থানীয় থানা পুলিশের মাধ্যমে সংগ্রহ করে এই “ডিজিটাল ডাটাবেজ” তৈরি করা হয়েছে। বিশেষ করে কিশোর অবস্থায় যারা বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত হয়ে পড়েছে তাদেরকে স্থানীয় থানা পুলিশের মাধ্যমে তাদের দৈনন্দিন কার্যক্রম মনিটরিং করা হচ্ছে, যেন ভবিষ্যতে কোন কিশোর ভুল পথে না যায়।

হ্যলো আরএমপি” অ্যাপের মাধ্যমে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে তথ্য প্রদান ও অনলাইনে অভিযোগ করা যায়। বাংলাদেশ পুলিশের জরুরী সেবা যেমন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট, অনলাইন জিডি এবং ৯৯৯ জাতীয় জরুরী সেবা সমূহ এই অ্যাপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বর্তমান বিশ্বের মহামারির ভয়ংকর রূপ নেয়া নোভেল করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর জরুরী সেবা সংক্রান্ত বাংলাদেশ সরকারের ওয়েব পোর্টালটিও এই অ্যাপে সংযুক্ত করা হয়েছে। এই অ্যাপ থেকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল কর্মকর্তাদের ফোন নম্বর, মোবাইল নাম্বার এবং ই-মেইল এড্রেস পাওয়া যাবে।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক, রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি আব্দুল বাতেন বিপিএম, পিপিএম, আরএমপির অতিরিক্ত কমিশনার সালমা বেগম প্রমুখ।

এআইআ/এইচি

ফেসবুকে অমাদের ফলো করুন